Tag archives for মা-ছেলে

দামি ফ্লাওয়ার ভাস

Bookmark

Share

ছেলেঃ মা তোমার সেই কাচের দামি ফ্লাওয়ার ভাসকে নিয়ে আর সব সময় চিন্তা করতে হবে না।
মাঃ কেন, কী হয়েছে?
ছেলেঃ ওটা ভেঙ্গে গিয়েছে!

রূপকথার গল্প

Bookmark

Share

ছেলেঃ মা, রূপকথার গল্প কি সব সময় ‘ এক দেশে এক রাজা ছিল’ দিয়ে শুরু হয়?
মাঃ না, সবসময় না, অনেক সময় অফিসের কাজে আটকে গেছি, আজ ফিরতে একটু রাত হবে ইত্যাদি দিয়েও শুরু হয়।

পাথর ছুড়ে মারা

Bookmark

Share

মাঃ তুমি রনির গায়ে পাথর ছুড়ে মারলে কেন?
ছেলেঃ ও তো আমার দিকে আগে মেরেছে।
মাঃ তুমি পাল্টা না মেরে আমাকে এসে বলতে পারতে।
ছেলেঃ তোমাকে বলে লাভ কী? তোমার হাতের নিশানা তো আমার চেয়েও খারাপ।

বয়স্ক মহিলাকে রাস্তা পার

Bookmark

Share

ছেলে (হাঁপাতে হাঁপাতে বাড়িতে এসে): মা, আমি আজ একটা খুব ভালো কাজ করেছি। আমি আর আমার দুই বন্ধু একজন বয়স্ক মহিলাকে ধরে রাস্তা পার করে দিয়েছি।
মাঃ বাহ্ খুব ভালো কাজ করেছ। কিন্তু তিন জন মিলে একজনকে ধরতে হল কেন?
ছেলেঃ আসলে উনি একদমই রাস্তাটা পার হতে চাইছিলেন না তো, তাই।

সকলেরই একই বই

Bookmark

Share

মাঃ তুমি ক্লাসে পেছন বেঞ্চে বস শুনে খুব চিন্তা হচ্ছে আমার।
ছেলেঃ ও নিয়ে ভেবো না। আমাদের সকলেরই একই বই।

কোমরে দড়ি

Bookmark

Share

মাঃ কী ব্যাপার রনি, সারাক্ষণ কোমরে দড়ি বেঁধে ঘুরে বেড়াচ্ছ কেন?
ছেলেঃ তুমিই তো সেদিন বললে, পরীক্ষা সামনে, এবার কোমর বেঁধে লেগে পড়।

প্রথম জলহস্তী দেখা

Bookmark

Share

মাঃ তোকে এক বছর আগে জলহস্তী বলেছে আর তুই এখন কাঁদছিস কেন?
ছেলেঃ আজই যে প্রথম জলস্তী দেখলাম।

নতুন পানি

Bookmark

Share

– গোল্ডফিশগুলোকে নতুন পানি দিয়েছিস?
– না, মা। কালকের পানিই তো ওরা এখনো খেয়ে শেষ করতে পারে নি।

বাথরুম ব্যবহার

Bookmark

Share

– মা, খোদা কি বাথরুম ব্যবহার করে?
– না তো, কেন?
– প্রত্যেকদিন সকালেই তো দেখি আব্বু দরজা ধাক্কান আর চেঁচান, হয় খোদা! তুমি এখনো বেরোও নি?

ফ্রান্স কোথায় অবস্থিত

Bookmark

Share

মা তার ছেলের স্ট্যাম্প জমানোর কথা বলছে তার বান্ধবীর কাছে।
– আমার ছেলের বইতে অনেক দেশের নাম নেই কিন্তু স্ট্যাম্প জমাতে জমাতে সে অনেক দেশের নাম শিখে গেছে এবং সে সব দেশ সম্বন্ধেও সে জানে। বল তো, ফাহাদ, ফ্রান্স কোথায় অবস্থিত?
– কেন, পাকিস্তানের দুই পৃষ্ঠা আগে।