Tag archives for চাঁদ

তিন চাপাবাজ

Bookmark

Share

তিন চাপাবাজ চাপাবাজি করছে।
প্রথম চাপাবাজঃ জানিস, যে বার চাঁদে গিয়েছিলাম, সেখানকার মানুষগুলো এত উন্নত- তারা এমন একটু বিল্ডিং বানিয়েছে যে একটি বোকা ছেলে একদিন বিল্ডিং এর ছাদ থেকে পড়ে গিয়েছিল। ছেলেটির মাটিতে পড়তে সময় লেগেছে পাঁচ বছর।

দ্বিতীয় চাপাবাজঃ দূর, এ আর এমন কী! সেবার আমি গিয়েছিলাম মঙ্গলগ্রহে, সেখানকার মানুষগুলো আরো উন্নত। তারা এমন একটি বিল্ডিং বানিয়েছে যে একবার একটু শিশু ওই বিল্ডিংটার ছাদ থেকে পড়ে গিয়েছিল। মাটিতে পড়ার সময় দেখা শিশুটির মুখের দাড়ি, গোঁফ সাদা হয়ে গেছে।

তৃতীয় চাপাবাজঃ দূর, এটা কোন উঁচু বিল্ডিং হল! আমি একবার গিয়েছিলাম বৃহস্পতিতে। সেখানকার শহরের সবচেয়ে উঁচু বিল্ডিং থেকে একদিন একটা বানর পড়ে গিয়েছিল। মাটিতে পড়ার পর দেখা গেল বানরটা মানুষ হয়ে গেছে।

কেনাকাটা

Bookmark

Share

স্বামী স্ত্রী কেনাকাটা করতে গেছে। স্ত্রী যা দেখে তাই নেয়। স্বামীর গম্ভীর ভাব আন্দাজ করে স্ত্রী বলল, দেখ, আজ কি সুন্দর চাঁদ উঠেছে!
স্বামী রেগে বলল, ওটাও কি কিনে দিতে হবে নাকি?

ঈদের সিজন

Bookmark

Share

ঈদের সিজনে ছেলে বাবাকে বলছে বাবা চাঁদ কি পৃথিবী থেকে অনেক দূরে?
ঈদ মার্কেটিং করতে করতে ক্লান্ত বাবা উত্তর দিল, ‘হ্যাঁ , তবে আরেকটু দূরে হলে আরো ভাল হত’।

রাখাল হলে?

Bookmark

Share

– আমি যদি শাহ্ জাহান হতাম, তোমার জন্য তাজমহল বানাতাম, আমি যদি আর্মস্ট্রং হতাম শুধু তোমার জন্য চাঁদ জয় করতাম।
– আর রাখাল হলে?
– তোমার জন্য ঘাস কাটতাম!

চাঁদের আকার

Bookmark

Share

– কাল ডিসকভারী চ্যানেলে চাঁদ এর আকার দেখাচ্ছিল, দেখেছিলি?
– হুম দেখেছি, চাঁদের সাইজ হচ্ছে পৃথিবীর ছয় ভাগের এক ভাগ।
– না, বারো ভাগের এক ভাগ
– মানে?
– আমাদের টিভিটা তোদের চেয়ে ডাবল না?

চাঁদের বুড়ি

Bookmark

Share

-বাবা চাঁদের বুড়ির বয়স কত?
– ৪৭৮০…
– বছর??
– মিলিয়ন বছর!

চাঁদের বুড়ো

Bookmark

Share

– আচ্ছা, চাঁদের বুড়ি কি সত্যিই চড়কা কাটে?
– দেখ, অবৈজ্ঞানিক কথা বলবি না। আমার অসয্য লাগে। আমি এসব বিশ্বাস করি না, ফালতু।
– আচ্ছা বাবা ঠিক আছে, তাহলে বল চাঁদের বুড়োকেতো বিশ্বাস করিস?
– মানে?
– নীল আর্মস্ট্রং… বিরাশি বছর বয়সে মারা গেল…২০১২ তে…

চাঁদ না সূর্য?

Bookmark

Share

– চাঁদ না সূর্য কোনটা জরুরী?
– অবশ্যই চাঁদ।
– কেন?
– বাহ, চাঁদ রাতে আলো দেয় যখন আমাদের আলোর দরকার। আর সূর্য দিনে ওঠে যখন আমাদের আলোর কোন সমস্যাই নেই।

স্পেসশিপে আমেরিকান

Bookmark

Share

স্পেস শীপ থেকে এক আমেরিকান বলল
– ঐ দেখ চাঁদের মাটিতে এখনো আমিরিকান পতাকা দেখা যাচ্ছে।
– কী করে দেখব? স্পেসশীপের ভিতর এক রাশিয়ান বলল, ‘চাঁদের মাটিতে চশমাটা ফেলে এসেছি সেই কবে!’

চাঁদ পর্যন্ত দেখলাম

Bookmark

Share

চিকিৎসকঃ আপনার চোখের অবস্থা  তো খুব খারাপ ! রাতে দেখতে পান কিছু?

রোগীঃ দেখি না তো বাবা!

চিকিৎসকঃ কতদূর পর্যন্ত দেখেন?

রোগীঃ গতকাল রাতে তো চাঁদ পর্যন্ত দেখলাম।