Tag archives for ঘুম

অনিদ্রা

Bookmark

Share

অনিদ্রায় ভুগে ভুগ প্রায় উন্মাদ বন্ধুকে দেখে অন্য বন্ধ বলল, এ কী হাল হয়েছে তোমার!
– কী করব, কিছুতেই যে ঘুম আসে না।
– ডাক্তার কী বলেন?
– আর ডাক্তার- তাদের কথায় কি না করেছি! গাদা গাদা বড়ি গিলেছি, গরম দুধ খেয়েছি হটবাথ নিয়েছি, কিছুই হয় নি।
– আচ্ছা, সেই পুরনো ওষুধ ভেড়া গোনা সেটা করে দেখেছ?
– ভালো কথা মনে করিয়েছ। আজই আমি শুয়ে শুয়ে ভেড়া গুনব।

পরদিন দেখা হতেই বন্ধুকে জিজ্ঞেস করল, কি, ফল পেয়েছ?
– নারে ভাই! দু’ হাজার ভেড়া গুনেও যখন ক্লান্ত হলাম না তখন ভেড়া জবাই করে চামড়া ছাড়াতে লাগলাম। সেই চামড়া দিয়ে দু’ হাজার ওভার কোট বানালাম। এই দুই হাজার ওভার কোটের লাইনিঙের কাপড় পাব কোথায়? আর তা ভাবতে ভাবতেই ভোর হয়ে গেল। ঘুমাতে পারলাম কই?

একটু ঘুমাতে চাই

Bookmark

Share

পাড়ার এক তবলাবাদককে গিয়ে এক প্রতিবেশী বলল, আপনার তবলাটা আত রাতের জন্য আমাকে একটু দেবেন?
– নিশ্চয়ই দেব, কেন নয়? কোনো জলসায় বাজাবেন বুঝি?
– না, আজ রাতে একটু ঘুমাতে চাই।

ঘুম পেলে

Bookmark

Share

শিক্ষকঃ ঘুম পেলে আমরা বিছানায় যাই কেন?
ছাত্রঃ ঘুম পেলেও বিছানা আমাদের কাছে আসে না, তাই।

জানালাটা পশ্চিমে

Bookmark

Share

– রোজ তুমি কখন ঘুম থেকে ওঠ?
– সূর্যের আলো জানালা দিয়ে ঘরে আসার সাথে সাথেই।
– বাহ, তুমি তা হলে খুব ভোরেই ওঠ!
– তবে ইয়ে, আমার ঘরের জানালাটা পশ্চিমে কিনা!

ক্লাসে ঘুমানো

Bookmark

Share

অধ্যাপকঃ এই যে ছেলে, তুমি আমার ক্লাসে কিছুতেই ঘুমাতে পার না।
ছাত্রঃ পারি স্যার, আপনি একটু আস্তে লেকচার দিলেই পারি।

ঘুমের মধ্যে কথা

Bookmark

Share

অধ্যাপকঃ হয়তো দেখতে আমার ভুল হয়েছে, কিন্তু মনে হল তুমিই যেন কথা বলছ।
ছাত্রঃ নিশ্চয় আপনার দেখতে ভুল হয়েছে, কারণ ঘুমের মধ্যে আমি কথা বলি না।

ঘুমের চাহিদা

Bookmark

Share

মানুষের ঘুমের চাহিদা হল, ‘আর মাত্র পাঁচ মিনিট’।

অসম্ভব প্রশ্ন

Bookmark

Share

প্রশ্নঃ কোন প্রশ্নের উত্তরে কখনো হ্যাঁ বলা যায় না।
উত্তরঃ তুমি কি ঘুমাচ্ছ?

মেয়ের নাম

Bookmark

Share

সামিয়াঃ কিরে, তোর মেয়ের নাম কী রেখেছিস?
রাইসাঃ ক্যাফেইন।
সামিয়াঃ সেকি! এত সুন্দর নাম থাকতে এমন খটমটে নাম রাখলি।
রাইসাঃ কারণ ও আমাকে একটা রাতও ঘুমাতে দেয় না।

পল্টু

Bookmark

Share

পল্টু গেছে এক পরামর্শকের কাছে।
পল্টুঃ স্যার, পড়তে বসলেই আমার শুধু ঘুম আসে।
পরামর্শকঃ তোমাকে ধ্যান করতে হবে। শোন, পড়ার আগে আসন গেড়ে বসবে। চোখ বন্ধ করবে। কল্পণা করবে তুমি একটা সবুজ মাঠে দাঁড়িয়ে আছ। মাঠের শেষে একটা বাড়ি। তোমার মনে বাড়ি। মনের বাড়িতে প্রবেশ করবে। দেখবে সুন্দ ঝরনা। নিজের ইচ্ছে মতো ঘুরে বেড়াবে। দেখবে একদম ঝরঝরে লাগছে। ঘুম দূর হয়ে যাবে।
পল্টুঃ ধ্যুৎতুরি, আপনার কাছে আসাই ভুল হয়েছে। এতোকিছু না করে আধঘন্টা ঘুমিয়ে নিলেই হয়।