Archives for যানবাহন ও ভ্রমন

বিঞ্জানের কি বিস্ময়

Bookmark

Share

কোন এক যাত্রী ভুল করে চিটাগাংগামী ট্রেনের পরিবর্তে সিলেটগামী ট্রেনে চড়ে বসল। ঘন্টাখানেক পরে উপরের বার্থে অন্য এক যা্ত্রী শুয়ে আছে দেখে তার সঙ্গে আলাপ করতে উৎসাহী হয়ে বললঃ কি মিষ্টার, আপনার যাওয়া হচ্ছে কোথায়?
দ্বিতীয় যাত্রীঃ সিলেট। প্রথম যাত্রীঃ (কিছুক্ষণ চুপ করে থাকল) বিজ্ঞানের কি বিস্ময় দেখুন, একই ট্রেনের উপরের বার্থ যাচ্ছে সিলেট আর নীচের বার্থ যাচ্ছে চিটাগাং।

কক্সবাজার

Bookmark

Share

স্ত্রীঃ এই কক্সবাজার বেড়াতে যাওয়ার টাকা যোগার হয়েছে?
স্বামীঃ হ্যাঁ, হয়েছে।
স্ত্রীঃ তাহলে আমরা কবে রওনা হচ্ছি?
স্বামীঃ কক্সবাজার থাকার আর বাড়ি ফেরার টাকার যোগার হলেই!!

বাসে তুমুল ঝগড়া

Bookmark

Share

বাসে তুমুল ঝগড়া হচ্ছে।
– মুখ সামলে কথা বলুন। না হলে বত্রিশ পাটি দাঁত এক চড়ে খুলে ফেলব।
– এক চড়ে আপনার চৌষট্টি পাটি দাঁত খুলে পকেটে পুরে দেব।

অল্পবয়সী এক ছেলে এ কথা শুনে বলল, দাঁতই তো মোটে বত্রিশ পাটি, চৌষট্টি পাটি খুলবেন কী করে?

– আমি জানতাম আপনি আমাদের কথার মাঝে নাক গলাবেন। তাই আপনার দাঁতের পাটি হিসাব করেই কথাটা বলেছি।

ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে

Bookmark

Share

ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে দেশ পরিক্রমায় বেরিয়েছে মহামন্ত্রী। এ গ্রাম থেকে ও গ্রাম ঘুরে ঘুরে তিনি মানুষের দুঃখ-দুর্দশার কথা শুনছেন, তাঁদের নানা উপদেশ দিচ্ছেন, মানুষও তাঁকে সসম্মানে গ্রহন করছে। তাঁর পরামর্শ শুনছে। মহামন্ত্রীর এই জনপ্রিয়তা দেখে ঘোড়ার গাড়ির চালকটিরও খুব মন্ত্রী হওয়ার শখ হল। জোড়হাতে সে বলল, একবারের জন্য আপনি যদি আপনার পোশাকটি আমাকে দেন আর আমারটা আপনি পরেন, তা হলে আমার শখটা একটু মেটে।

মহামন্ত্রীর মনটা খুব উদার। সঙ্গে সঙ্গে নিজের পোশাকটি চালককে দিয়ে চালকের পোশাক পরে তিনি চালকের আসনে বসলেন। মহানন্ত্রী চালককে সতর্ক করে দিয়ে বললেন, দেখো কেবল মন্ত্রীর পোষাক পড়লেই হবে না। কেউ কোনো জটিল সমস্যার সমাধান চাইলে তাকে সঠিক পরামর্শও দিতে হবে।
– ও, আমি ঠিক সামলে নেব।

পরের গ্রামে নকল মন্ত্রী খুব সম্মান পেল। একজন এসে তার জটিল এক সমস্যার সমাধান চাইল।

নকল মন্ত্রী বলল, এটা কোন জটিল সমস্যা নয়। আমার চালকই পারবে। এই, ওকে সমস্যার সমাধানটা বলে দাও তো।

ট্রেনের সময়

Bookmark

Share

– চিটাগাংয়ের ট্রেনটা কখন যাবে বলতে পারেন?
– ন’টা বিশে।
– সিলেটেরটা কখন আসবে?
– ঘন্টাখানেক পরে।
– আর ঢাকার ট্রেনটা?
– আচ্ছা, আপনি ঠিক কী জানতে চাইছেন বলুন তো?
– এই লাইনটা পার হব কি না, তাই ট্রেনের সময়গুলো একটু জেনে নিচ্ছি।

আকাশে বিমানের ইঞ্জিন

Bookmark

Share

আকাশে বিমানের ইঞ্জিনটি হঠাৎ খারাপ হয়ে গেল। অতি কষ্টে সমুদ্রে বিমানটি নামানো হল। পাইলট যাত্রীদের উদ্দেশ্যে বললেন, বিমানটি সমুদ্রে ভাসমান অবস্থায় রাখা সম্ভব নয়। কাজেই যারা সাঁতার জানেন তারা হয়তো তীরে পৌঁছতে পারবেন। যারা সাঁতার জানেন না, তাদেরকে আমাদের বিমানে ভ্রমণের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

গরম লাগছে

Bookmark

Share

– গাড়ির জানালাগুলো খুলে দাও, গরম লাগছে।
– সে তো আমারও লাগছে। কিন্তু খুললেই তো ওরা জেনে যাবে আমাদের গাড়ি এয়ারকণ্ডিশনড নয়।

দারুন একটা দিন

Bookmark

Share

– আজ দারুন একটা দিন গেল। কোন ট্রাফিক জ্যামে পড়তে হয় নি, শব্দ নাই, ধোঁয়া নাই।
– কে বলল তোকে, আজ ঢাকায় তো প্রচণ্ড জ্যাম।
– আজ আমি বাসায় যে!

টিকিট চেকার

Bookmark

Share

ট্রেনের সকল যাত্রী হইচই করে উঠল, এই ট্রেন থামাও, ট্রেন থামাও। একজন বৃদ্ধা মহিলা পড়ে গেছেন।
টিকিট চেকার গম্ভীর স্বরে বলল, অসুবিধা নেই, তার টিকিট চেক হয়ে গেছে।

সামি আর জামি

Bookmark

Share

মা তার দুই ছেলে সামি আর জামিকে নিয়ে ট্রেনে যাচ্ছেন। মা খুব মনোযোগ দিয়ে একটা বই পড়ছিলেন। সামি বলল, ‘একটু আগে যে স্টেশনটা ছেড়ে এলে ওটার নাম কী মা?’
মা বিরক্ত হয়ে বললেন, ‘জানি না, কেন বিরক্ত করছ? দেখছ না আমি বই পড়ছি!’
সামি বলল, ‘আমি ভেবেছিলাম নামটা জানার আগ্রহ হবে তোমার। ওই স্টেশনেই আমাদের জামি নেমে গেল কিনা!’

Page 1 of 8:1 2 3 4 »Last »